মানুষ কী মানুষের শত্রু?

শেষ পর্ব
উপর্যুক্ত আয়াতটির বাংলা অর্থ বুঝি বা না বুঝি, কিন্তু আরবী ভাষায় আয়াতটির সঙ্গে আমরা প্রায় সব মুসলমানই পরিচিত হলেও, তার তাৎপর্য আমরা অনেকেই জানি না। একজন গর্ভধারিণী “মা-জননী” তার গর্ভের সন্তানটিকে ধারণ করে রাখেন মাত্র নয়-দশমাস, আর তার জন্মভূমির “মা-মাটি” নিজ বুকে ধারণ করে রাখেন অনন্তকাল। আর কেউ যদি সেই “মা-মাটির” সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে বা বেঈমানী করে, তাহলে সেই “মা-মাটি” তাকে কখনই ক্ষমা করার কথা নয়। তার কবর নামক বুকের ভিতরে ঢুকলেই এক পিষায় সেই বেঈমানের হাড়-হাড্ডি গুড়ো করে ছাতু বানিয়ে ফেলতে পারে। তাই আসুন, আমরা আমাদের গর্ভধারিণী “মা-জননী-কে” যেমনিভাবে ভালবাসি, ঠিক তেমনিভাবেই আমরা আমাদের প্রাণপ্রিয় জন্মভূমির “মাটি” তথা “দেশ ও জাতিকে” ভালবাসবো। জীবন গেলেও আমরা “মা-মাটি” তথা দেশ ও জাতির সাথে মুনাফিকী করবো না । আমরা আমাদের শপথ বা কৃত অঙ্গীকারকে বেঈমানী করে, সেই বেঈমানীর মূল্য যত তুচ্ছই হোক, আর যত বেশিই হোক, কোন মূল্যেই বিক্রি করবো না। নিজের সামান্য স্বার্থের মোহে অন্ধ হয়ে পিলখানা বিডিআর সদর দপ্তরের মত আর কোন ভাই-বোনের শরীরের রক্ত পান করবো না এবং কাঁচা গোশ্তগুলো চিবিয়ে খাবো না। যেটা আমাদের দেশ ও জাতির মহাশত্রুরা সর্বদাই আশা করবে। এটাই হোক আমাদের আজকের নতুন প্রজন্মের সুদৃঢ় অঙ্গীকার। শপথ বিক্রি সম্পর্কে আমাদের প্রতিপালক দয়াময় আল্লাহ বলছেন ঃ Continue reading মানুষ কী মানুষের শত্রু?

মানুষ কী মানুষের শত্রু?

৫ম পর্ব
তদ্রূপ পিলখানা বি.ডি.আর সদর দপ্তরে যে সব নরখাদক আল্লাহর কাছে কৃত শপথ ভঙ্গ করে দেশ ও জাতির সাথে বিশ্বাসঘাতকতা ও বেঈমানী করে ভাই হয়ে নিজের ভাইদের শরীরের রক্ত চুষে এবং কাঁচা গোশতগুলো চিবিয়ে খেয়েছে। তারাও ইবলীস এবং তার অনুসারীদের দ্বারা বিভ্রান্ত হয়েই সেই অপকর্মগুলো করেছে। নিজ দেশীয় হোক বা ভিন্নদেশের বিদেশী শয়তানের অনুচরই হোক, তাদেরকে শয়তানের দলবল যে কোন লোভ লালসার প্রতি আসক্ত করেই তাদেরকে দিয়ে সেই স্মরণকালের দুর্ঘটনাটি ঘটিয়েছে। দেশ ও জাতির স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব তথা অখণ্ডতা রক্ষার জন্যে যারা একদিন প্রকাশ্যে জনসম্মুখে আল্লাহর নামে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ স্পর্শ করে সুদৃঢ় শপথ নিয়েছিল, শেষ পর্যন্ত তারাই সামান্য মূল্যে তাদের পবিত্র শপথকে শয়তানের দোসরদের কাছে বিক্রি করে সেই ধ্বংসাত্মক অপকর্মটি করেছে। অথচ শপথ বিক্রি সম্পর্কে দয়াময় প্রতিপালকের কঠোর নির্দেশ : “তোমরা আল্লাহর সঙ্গে কৃত অঙ্গীকার তুচ্ছ মূল্যে বিক্রি করো না; আল্লাহর কাছে যা আছে শুধু তাই তোমাদের জন্যে উত্তম, যদি তোমরা জানতে। তোমাদের কাছে যা আছে, তা নিঃশেষ হবে এবং আল্লাহর কাছে যা আছে তা স্থায়ী; যারা (তাদের প্রয়োজন পুরণের জন্য আল্লাহর উপর ভরসা করে) ধৈর্যধারণ করে, আমি নিশ্চয়ই তাদেরকে তারা যা করে তা অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ পুরষ্কার দান করব।” (সূরা আন্নাহল: ৯৫-৯৬) Continue reading মানুষ কী মানুষের শত্রু?