কুরআনের আলো

৬৭. আর স্মরণ কর, যখন মূসা তার কওমকে বলল, ‘নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদেরকে নির্দেশ দিচ্ছেন যে, তোমরা একটি গাভী যবেহ করবে’। ৮৯ তারা বলল,  ‘তুমি কি আমাদের সাথে উপহাস করছ?’ সে বলল, ‘আমি মূর্খদের অন্তর্ভুক্ত হওয়া থেকে আল্লাহর আশ্রয় চাচ্ছি।’  ৯০ Continue reading কুরআনের আলো

বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

উপক্রমণিকা ঃ ঈসায়ী ৭ম শতকের পৃথিবী। সর্বত্র যুদ্ধ রক্তপাত আর হানাহানি। ব্যক্তি পরিবার সমাজ রাষ্ট্র সর্ব ক্ষেত্রেই ছিল নৈরাজ্য আর অশান্তি। শান্তির দূরতম লক্ষণ কোথাও দৃষ্টিগোচর ছিলোনা। মানবতার ও সভ্যতার এহেন অশান্তিময় দুরবস্থায় এলেন মহানবী (সা.)। পেশ করলেন শান্তির বাণী। মাত্র ২৩ বছরের মধ্যে তিনি তদানীন্তন আরবে এক শান্তিময় রাষ্ট্র স্থাপন করলেন। প্রশস্ত করে দিলেন মানবতার শান্তির স্বর্গীয় অনুপম পথ। সমগ্র মানবজাতি খুঁজে পেয়েছিলো শান্তির দিকনির্দেশনা। তাঁর আদর্শ অনুসরণ করে যুগ-যুগ ধরে চলে আসা যুদ্ধের অবসান ঘটে ছিলো আরবে। চরম অশান্তির বদলে স্থাপিত হয়েছিলো সুখের আবাস। নিষ্পেষিত শোষিত মানবতা খুঁজে পেয়েছিলো শান্তির অমিয়ধারা। আর প্রত্যক্ষ করেছিলো শান্তিময় সুশীল সমাজরাষ্ট্র। বিশ্ববাসী লাভ করেছিলো শান্তির পরশ। স্বর্গীয় শান্তির ফল্গুধারা নেমে এসেছিলো ধূলির এ ধরায়। শান্তিময় হয়ে ওঠেছিলো সবকিছু। শান্তির সুবাতাস বয়ে চলছিলো বিশ্বজুড়ে। এভাবে মহানবীর শিক্ষা সংস্কার ও সমাজ বিনির্মাণে মূর্ত হয়ে ওঠেছিলো সে দিন। Continue reading বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম

প্রশ্নোত্তর

১/ প্রশ্নঃ কোন কোন দলের ভাইগণ বলেন যে, আল্লাহর রাস্তায় বের হয়ে নিজ প্রয়োজনে ১ টাকা ব্যায় করলে ৭ লক্ষ টাকা ব্যায় করার ছাওয়াব পাবে। ১ টি নেকী করলে ৪৯ কোটি নেকী পাবে এবং কারো জন্য অপেক্ষ করলে লায়লাতুল ক্বদরে হাজরে আসওয়াদকে সামনে রেখে ইবাদত করার ছাওয়াব পাবে ইত্যাদি। শরীয়তে উক্ত কথাগুলোর প্রমাণ আছে কি? জবাব দিয়ে উপকৃত করবেন।

উত্তরঃ প্রশ্নে উল্লেখিত ফযীলতের কথাগুলো ভিত্তিহীন। পবিত্র কুরআনে ও সহীহ হাদীসে এর কোন দলীল পাওয়া যায় না। তবে ভাল কাজের জন্য অবশ্যই নেকী রয়েছে। আল্লাহ তা‌আলা এরশাদ করেন; যে ব্যক্তি একটি ভাল কাজ করবে , এর বিনিময়ে তার জন্য দশটি নেকী রয়েছে। (সূরা আন’আম: ১৬০) রাসূল (সাঃ) বলেন; আদম সন্তানের প্রত্যেক নেক আমলের দশগুণ হতে সাতশত গুণ ছাওয়াব প্রদান করা হয়। (বুখারী ও মুসলিম) তাছাড়া ৭ লক্ষ নেকী ও ৮৯ কোটি নেকীর প্রমাণ খুঁজে পাইনি। Continue reading প্রশ্নোত্তর

আরাফা দিবস

আরাফাহ দিবসের ফজিলত

আরাফাহ দিবস হল এক মর্যাদাসম্পন্ন দিন। যিলহজ মাসের নবম তারিখকে আরাফাহ দিবস বলা হয়।

এ দিনটি অন্যান্য অনেক ফজিলত সম্পন্ন দিনের চেয়ে বেশি মর্যাদার অধিকারী। যে সকল কারণে এ দিবসটির এত মর্যাদা তার কয়েকটি নীচে আলোচিত হল :— Continue reading আরাফা দিবস

প্রশ্নত্তোর

১/ প্রশ্নঃ একজন সচ্ছল ও সামর্থবান ব্যক্তির উপর কয়টি কুরবানী করা ওয়াজিব ?


উত্তরঃ সচ্ছল ও সামর্থবান পূর্ণবয়স্ক মুসলমানের উপর একটি কুরবানী করা ওয়াজিব। যদিও সে অধিক সম্পদের মালিক হোক না কেন? তবে যদি কেউ একাধিক কুরবানী করে তাহলে তা হবে নফল ছাওয়াব। Continue reading প্রশ্নত্তোর

প্রশ্নোত্তর

১/ প্রশ্নঃ কুরবানীর জন্য পূর্বে ক্রয় করে রাখা পশু সংসারের অভাবের কারণে বিক্রি করা যাবে কি? এবং পরবর্তীতে উক্ত মূল্যে বা অতিরিক্ত মূল্যে পশু ক্রয় করে কুরবানী করলে বৈধ হবে কি-না জানিয়ে বাধিত করবেন।
উত্তরঃ পূর্বে ক্রয় করে রাখা কুরবানীর পশু পরিবারের নিতান্ত অভাবের কারণে বিক্রি করে খরচ করতে পারবে। কেননা পরিবারের খরচ বহন করা তার জন্য আবশ্যক। অতঃপর পরবর্তীতে সামর্থ হলে পশু কিনে কুরবানী করবে। (ইবনে মাযাহ)

Continue reading প্রশ্নোত্তর